RSS

কলকাতা মেট্রোর ষোলোটি নতুন রুটের সমীক্ষার কাজ শুরু

02 জানু.

সম্প্রসারণ পরিকল্পনার মানচিত্র

ভারতীয় রেলের অন্যতম অধিগৃহীত সংস্থা রাইটস কলকাতা মেট্রো রেল নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণের লক্ষ্যে ষোলোটি নতুন রুটের সমীক্ষার কাজ শুরু করল। প্রাক্তন রেলমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর ২০১১-১২ সালের রেল বাজেটে এই ষোলোটি রুট সমীক্ষার প্রস্তাব রেখেছিলেন। এই পরিকল্পনা সাফল্যের মুখ দেখলে শুধু যে বৃহত্তর কলকাতা ও তার পার্শ্ববর্তী জেলাগুলিই কলকাতা মেট্রো পরিষেবার আওতায় আসবে, তাই নয় কলকাতা মেট্রো পরিণত হবে ভারতের বৃহত্তম মেট্রো রেল নেটওয়ার্কে।

সমীক্ষার পর রাইটস বিস্তারিত প্রকল্প রিপোর্ট জমা দেবে। তারই ভিত্তিতে সম্ভবত ধাপে ধাপে এই সম্প্রসারণ প্রকল্প বাস্তবায়িত হবে। রাইটস যেসব রুটে এই নতুন মেট্রোপথ স্থাপনের সম্ভাবনা খতিয়ে দেখবে সেগুলি হল:

* সাঁতরাগাছি–শালিমার (ডবল-লাইন করিডোর, কোনা এক্সপ্রেসওয়ে হয়ে)

* বালি হল্ট–চন্দননগর

* জোকা – মহানায়ক উত্তমকুমার (টালিগঞ্জ) (ঠাকুরপুকুর ক্যান্সার হাসপাতাল হয়ে)

* ব্যারাকপুর–কল্যাণী

* জোকা–ডায়মন্ড হারবার (ডায়মন্ড হারবার রোড বরাবর)

* মধ্যমগ্রাম–ব্যারাকপুর (সোদপুর রোড ও কল্যাণী এক্সপ্রেসওয়ে বরাবর)

* বারাসত–বসিরহাট (২ নং রাজ্যসড়ক বরাবর)

* বসিরহাট–মহানায়ক উত্তমকুমার/কবি সুভাষ (নিউ গড়িয়া)

* হাওড়া ময়দান–শ্রীরামপুর (ডানকুনি ও সিঙ্গুর হয়ে)

* হাওড়া ময়দান–বেলুড়,

* হাওড়া ময়দান–ধূলাগড়ি,

* ব্যারাকপুর–কল্যাণী

মেট্রো নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণের জন্য কলকাতা মেট্রোকে কোচ ও রেক জোগান দেওয়ার জন্য একটি বিশেষ কারখানাও কলকাতার আশেপাশে গড়ে তোলা হবে বলে জানা গিয়েছে।

মেট্রো রেল সূত্রে জানা গিয়েছে, ভূগর্ভস্থ লাইন পাতা ব্যয়বহুল বলে ভায়াডাক্ট অর্থাৎ উড়ালপথে সম্প্রসারণকেই প্রাধান্য দেওয়া হবে। কোচ ও রেকের অভাব মেটানোর জন্য একটি কোচ মিড-লাইফ হ্যাবিলিটেশন ইউনিটও গড়ে তোলা হবে। নতুন রুট চালুর আগেই এই সব পরিকাঠামো গড়ে তোলা হবে।

পাশাপাশি নোয়াপাড়া-বারাসত (বিমানবন্দর হয়ে), বরানগর-ব্যারাকপুর ও বরানগর-দক্ষিণেশ্বর, বিমানবন্দর-কবি সুভাষ (রাজারহাট হয়ে) এবং জোকা-বিবাদীবাগ (মাঝেরহাট হয়ে) – এই নির্মীয়মান মেট্রোপথগুলির কাজের অগ্রগতির দিকে নজর রাখার জন্য উচ্চপদস্থ রেলওয়ে আধিকারিকদের নিয়ে একটি কোর কমিটি ইতিমধ্যেই গঠন করা হয়েছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রেলমন্ত্রী থাকাকালীনই ২০১০ সালের ২৯ ডিসেম্বর কলকাতা মেট্রোকে পৃথক জোনের স্বীকৃতি দেওয়ার সময় ১১,০০০ কোটি টাকার সংস্থান করে যান।

এছাড়া রেলওয়ে রাজ্য সরকারের হাতে থাকা ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো অধিগ্রহণের ক্ষেত্রে নীতিগত সম্মতি জানিয়েছে। এই ব্যাপারে ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথাবার্তাও চলছে বলে জানা গিয়েছে।

সূত্র: টাইমস অফ ইন্ডিয়া, ২ জানুয়ারি, ২০১২

 

ট্যাগ সমুহঃ

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

Connecting to %s

 
%d bloggers like this: